বিএনপির কর্মকাণ্ডে হতাশ বেগম জিয়া, সরকারেই শেষ আস্থা

নিউজ ডেস্ক: বেগম জিয়া শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসা নেয়ায় বিএনপির রাজনীতিতে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন। একটি পক্ষ বলছে, তারেক রহমানের সঙ্গে মতের মিল না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত সরকারকে ভরসা করে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে রাজি হয়েছেন বেগম জিয়া।

কেউ কেউ বলছেন, দলের উপর ভরসা হারিয়ে বিএনপি নেত্রী সরকারের ডাকে সাড়া দিয়েছেন। সব মিলিয়ে বিএনপির রাজনীতিতে হতাশা অনুধাবন করেই বেগম জিয়া নীরবে সব মেনে নিচ্ছেন বলেও জানা গেছে। দলটির একাধিক দায়িত্বশীল নেতাদের সঙ্গে একান্ত আলাপকালে বিষয়টির সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, দলের ভেতর কোনভাবেই সমন্বয় ফেরাতে পারছেন না ম্যাডাম। লন্ডন থেকেও সঠিক নির্দেশনা আসছে না। সব মিলিয়ে বিশৃঙ্খলার জালে আটকা পড়েছে বিএনপি। শুনতে খারাপ লাগলেও এটি সত্য যে, দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ দলে শৃঙ্খলা ফেরাতে সদিচ্ছা দেখাচ্ছেন না। ম্যাডামের তরফ থেকে নির্দেশনা ছিলো যে, কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলে তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে। সেই আন্দোলনও কিন্তু বিএনপি গড়ে তুলতে পারেনি। লন্ডন ও ঢাকার আবহাওয়ার মতো বিএনপির রাজনীতিতেও পার্থক্য দেখা যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির হতাশাজনক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে আস্থা হারিয়েই সরকারের প্রস্তাব মেনে নিতে বাধ্য হয়েছেন বেগম জিয়া। এটা বিএনপির জন্য রাজনৈতিক পরাজয় বলা চলে। এটির জন্য ম্যাডাম জিয়াকে ব্যর্থ বলা যাবে না বরং এটি বিএনপির দলগত ব্যর্থতা বলা চলে। আপনি দুর্বলতা প্রকাশ করলে তো আপনার বিরোধী পক্ষ আপনার উপর চেপে বসবেই। চিকিৎসা নিয়ে আর রাজনীতি করাটা সমীচীন হবে না। বরং ভিন্ন কায়দায় আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, ম্যাডামের চিকিৎসা প্রয়োজন। সরকারি বা বেসরকারি জায়গা নিয়ে হৈচৈ করে লাভ নেই। বৃক্ষ বাঁচলেই ফল পাওয়া যাবে। সুতরাং ম্যাডাম জিয়াকে নিয়ে আপাতত আর রাজনীতি না করাটাই উত্তম। কার ভরসায় আপনি এসব করবেন? বিএনপি তো এখন ছন্নছাড়াদের আশ্রয়কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *