জোটের ভাঙন রোধে বিএনপিকে এমাজউদ্দীনের পরামর্শ, একমত নন জাফরুল্লাহ

নিউজ ডেস্ক: ২০ দলীয় জোটের ভাঙন রোধ করতে হলে বিএনপিকে প্রতিমাসে একবার করে সম্মিলিত বৈঠক করার পরামর্শ দিয়েছেন বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমেদ।

বৈঠক আয়োজন করা চ্যালেঞ্জিং হলেও জোটের শক্তি ধরে রাখতে বিএনপির হাতে বিকল্প কোনো পথ নেই বলেও মনে করেন এমাজউদ্দীন। তবে বিএনপিপন্থী আরেক বুদ্ধিজীবী মনে করেন বিএনপি যদি ভুল স্বীকার করে সঠিক পথে ফেরার সিদ্ধান্ত নেয় তবে হয়তো সংকট দূর হতে পারে। বিএনপিপন্থী দু’জন বুদ্ধিজীবীর সঙ্গে একান্ত আলাপকালে জোটের চলমান সমস্যা সমাধানে বিএনপির করণীয় বিষয়ে জানা গেছে।

এই বিষয়ে ঢাবির সাবেক ভিসি এমাজউদ্দীন আহমেদ বলেন, ২০ দলীয় জোটের সাংগঠনিক সক্ষমতা ধরে রেখে শক্তিশালী সরকারবিরোধী আন্দোলন গড়ে তুলতে হলে বিএনপিকে অবশ্যই জোটের রাজনীতিতে মনযোগী হতে হবে। ২০ দলের চলমান দ্বন্দ্ব বা বিভক্তির মূল কারণ বিএনপির ভুলের রাজনীতি। ২০ দল ছাড়া বিএনপি কোনদিনই সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলতে পারবে না। সুতরাং ঘরের মানুষের সঙ্গে ঝগড়া করে বাহিরের মানুষের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে লাভবান হতে পারবে না বিএনপি।

তিনি আরো বলেন, নতুন নতুন জোটের ফাঁদে পা দিয়ে বিএনপি যথেষ্ট রাজনৈতিক ভুল করেছে। ঐক্যফ্রন্টে যোগদান করে বিশেষ কোনো লাভ হয়নি বিএনপির। যে আশায় পুরাতন মিত্রদের অবহেলা করেছে বিএনপির সে আশায় গুড়ে বালি। সুতরাং ঐক্যফ্রন্টের মোহ থেকে বিএনপিকে বের হয়ে এসে ২০ দলের ভাঙন রোধ করে জোটকে রাজপথমুখী করাটা বিএনপির মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত।

তবে এমাজউদ্দীনের বক্তব্যকে পুরোপুরি সমর্থন করেন না বিএনপিপন্থী আরেক বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের এই প্রতিষ্ঠাতা মনে করেন, ঐক্যফ্রন্ট বিএনপিকে নির্বাচনমুখী করেছে। বিএনপির নিবন্ধন বাঁচিয়ে ভোটের রাজনীতিতে সচল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে ঐক্যফ্রন্ট। বিএনপিকে নিয়ে রাজনৈতিক জোট গঠন করেছিল ঐক্যফ্রন্ট, বিএনপির পুনর্বাসনের দায়িত্ব নেননি ড. কামাল। ২০ দলীয় জোটের ভাঙন অবধারিত ছিলো বিএনপির অমনোযোগিতা ও অবহেলার কারণে।

তিনি আরো বলেন, ২০ দলীয় জোট থাকা না থাকা নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের কোনো মাথা ব্যথা নেই। তবে ঢালাওভাবে ঐক্যফ্রন্টকে দোষারোপ করাটা মেনে নেব না আমরা। বিএনপির উচিত হবে- ক্ষমা চেয়ে ২০ দলীয় জোটকে শক্তিশালী করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *