মঞ্চ ভেঙে আহত মির্জা ফখরুলরা, সন্দেহের তীর ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধদের দিকে!

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভেঙে পড়ে আহত হয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলটির বেশ কয়েকজন নেতা।

শুক্রবার ১৪ই জুন রাত পৌনে ১০টার দিকে সাবেক সংসদ সদস্য আলী নেওয়াজ খৈয়ামের ছেলের বিয়েতে এই বিব্রতকর ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী একজন বিএনপি নেতা জানান, বিয়ের মঞ্চে মির্জা ফখরুলকে দেখে সেলফি তোলায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এ সময় হঠাৎ মঞ্চ ভেঙে পড়ে যায়। এতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাসসহ দলটির সিনিয়র বেশ কয়েকজন নেতা আহত হন। মির্জা ফখরুলদের বিব্রত করতে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ইচ্ছাকৃতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে সন্দেহ প্রকাশ করেন সেই নেতা।

এদিকে বিষয়টিকে ষড়যন্ত্র হিসেবে দেখছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, ছাত্রদলের কিছু নেতা কমিটি ভেঙ্গে দেয়ায় বেশ হইচই করছেন। তারা বিএনপির গঠনতন্ত্র ভেঙে বয়স সীমা না করে ধারাবাহিক কমিটির দাবিতে আন্দোলন করছে। কিন্তু বিএনপির স্থায়ী কমিটির কেউই এ বিষয়টি মেনে নিতে চাইছেন না। ছাত্রদলের কমিটি ভেঙ্গে দেয়ার পেছনে মির্জা ফখরুলের হাত রয়েছে, গুজবে কান দিয়ে ছাত্র নেতারা ষড়যন্ত্র করে মঞ্চ ভেঙ্গে দিয়েছে।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে মঞ্চ ভেঙ্গে পড়ে আহত হওয়া বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, এটা তেমন বড় কোনো ঘটনা নয়। ছাত্রদল নিয়ে বিএনপিতে এখন অন্তর্কোন্দল চলছে, তার কারণে সংগঠনটির বিক্ষুব্ধ নেতারা এমনটা করলেও করতে পারেন। এর পেছনে কুচক্রী মহলের মদদ রয়েছে বলে আমি মনে করছি।

তিনি আরো বলেন, তবে ষড়যন্ত্রকারীরা সফল হতে পারেননি। কারণ আমরা খুব একটা ব্যথা পাইনি। ছবি তোলার সময় অনেক লোক একসঙ্গে মঞ্চে উঠিয়ে ছাত্রদলের পথভ্রষ্ট নেতারা এমনটি ঘটিয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। আমরা এই ঘটনার তদন্ত করছি। কেউ দোষী সাব্যস্ত হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *